গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ব্যাপারে যা বললেন মন্ত্রী - Vikaspedia

গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ব্যাপারে যা বললেন মন্ত্রী

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, বিশ্ব অস্থিতিশীল জ্বালানিতে। এই পরিস্থিতিতে সাশ্রয়ীভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহার করা উচিত। তিনি বলেন, জ্বালানির দাম বাড়বে কি না বা কতটুকু বাড়বে তা পুরোটাই নির্ভর করছে ভর্তুকির ওপর।

আমরা প্রয়োজনীয় ভর্তুকির জন্য প্রস্তাব করেছি। এখন সরকারের বিবেচনার বিষয় এ খাতে কতটুকু বিনিয়োগ করবে। বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, গ্যাসের দাম বাড়বে কিনা তা বিইআরসি জানে। তারা শুনানি করছে। তবে আমরা সহনীয় পর্যায়ে রাখতে চাই। দামের বিষয় বিইআরসির ওপর নির্ভর করছে। এখন বিদ্যুতে সরকার কতটুকু বিনিয়োগ করবে সেটা সরকারের বিষয়। আমরা চাই স্থিতিশীল রাখার জন্য।

এখন কতটা নিতে পারবে সরকার সেটা বিবেচ্য বিষয়। যদি আমাদের প্রস্তাব সবটুকু নেয়, তাহলে তো কথা নেই। তিনি বলেন, আজকে তেলের দাম ২৭০ ডলারে উঠেছে। ৩০০ ডলারের এলএনজির কার্গো এখন ১ হাজার ২০০ ডলার।

বিশ্বে জ্বালানি পরিস্থিতি এখন অস্থিতিশীল। শ্রীলঙ্কায় এখন ১০ ঘণ্টা লোডশেডিং হচ্ছে। ভারত তিনগুণ বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে। তেলের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে পাঁচগুণ। আমরা এখনও ঠিক আছি। সবার কাছে অনুরোধ, ধৈর্য ধরবেন।

এদিকে ভোজ্যতেলের দাম বাড়ানোর রেশ কাটতে না কাটতেই এবার বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। তিনি বলেন, আগামী দিনগুলোতে যে চ্যালেঞ্জ আসছে, তা মোকাবিলার জন্য যে পরিমাণ ধৈর্য দরকার, তা সবার কাছে আশা করছি।

বিদ্যুতের দাম বাড়বে কিনা সেটা বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) বলতে পারবে। প্রস্তাব গেছে, সেটা বিইআরসির সিদ্ধান্ত। সবাই যেন প্রস্তুত থাকে, হয় শকড আসবে, না হয় আসবে না।তবে আমরা চাচ্ছি যতটুকু সহনীয় পর্যায়ে রাখা যায়।