ঢাবি শিক্ষার্থীকে ব্ল্যাকমেইল করে শা’রীরিক সম্পর্কে বাধ্য করার অভিযোগ - Vikaspedia

ঢাবি শিক্ষার্থীকে ব্ল্যাকমেইল করে শা’রীরিক সম্পর্কে বাধ্য করার অভিযোগ

মো. আরিফ জাওয়াদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে: বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গোপনে আপত্তিকর ছবি তুলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০১৯-২০ সেশনের এক শিক্ষার্থীকে ব্ল্যাকমেইল করে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করার অভিযোগ উঠেছে। ইতোমধ্যে ওই ছাত্রীটি বাদী হয়ে শাহবাগ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত মিনহাজুল বিন মাহমুদ (২৭)। উত্তরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করে মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রে কোরিয়ান একটি কোম্পানির অধীনে অস্থায়ী ভিত্তিতে সিভিল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করছেন। মিনহাজুল খুলনার দৌলতপুরে মিরাজ মাহমুদের পুত্র।

আরো জানা যায় যে, পারিবারিকভাবে বিয়ের কথা চলায় মিনহাজের সঙ্গে ওই শিক্ষার্থীর ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক তৈরি হয়। এই সুযোগে গোপনে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি তুলে রাখে মিনহাজ। এরপর এসব ছবি দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে বিয়ের আগেই তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ছবি সামাজিক যোগাযোগ ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়।

ভুক্তভোগী ছাত্রী জানান, এক পর্যায়ে আমি এগুলো সহ্য করতে না পেরে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা মঞ্চের পরামর্শক্রমে তথ্যপ্রমাণসহ শাহবাগ থানায় লিখিত অভিযোগ দিই। বিয়েতে অস্বীকৃতি জানালে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করেছেন বলে পুলিশের প্রথামিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন অভিযুক্ত যুবক।

এ দিকে ঢাবি নিরাপত্তা মঞ্চের অন্যতম সমন্বয়ক আরাফাত চৌধুরী বলেন, ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী সহায়তা চাইলে, পরবর্তীতে সেই বখাটে ব্ল্যাকমেইলার সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে কৌশলে তাকে জিম্মি করা হয়। জিম্মির পর মোবাইল ফোন থেকে একাধিক নারীর গোপনে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ধারণকৃত ছবি পাওয়া যায়। পরে তাকে শাহবাগ থানায় সোপর্দ করা হয়।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মওদূত হাওলাদার বলেন, ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী অভিযোগপত্র দিয়েছেন। যাচাই করে আমরা মামলা দেব। অভিযুক্ত এখন আমাদের হেফাজতে রয়েছেন।