দুই লাখ টাকা যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা - Vikaspedia

দুই লাখ টাকা যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

দুই লাখ টাকা যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে নির্মম ভাবে পিটিয়ে হত্যা করেছেন বলে স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। নেত্রকোনার পূর্বধলায় টপি আক্তারকে নামে এক নারীকে হত্যার অভিযোগে স্বামী কুদরত আলীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার পূর্বধলা উপজেলার ধলামূলগাঁও ইউপির জামুদ গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে কুদরত আলীকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে শনিবার রাতে নিজ বাড়িতেই স্ত্রীকে মাথায় আঘাত করে হত্যা করেছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা যায়।

নিহত টপি আক্তার উপজেলার জারিয়া ইউপির মেঘাপাড়া গ্রামের আব্দুল কাসেমের মেয়ে। অপরদিকে অভিযুক্ত কুদরত আলী স্থানীয় মো. দেওয়ান আলী ছেলে।

টপির বড় ভাই কাজল মিয়া জানান, টপি আক্তার ও কুদরত আলীর বিয়ে হয় প্রায় নয় বছর আগে। তাদের তিন সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য প্রায়শই টপিকে মারধর করতো কুদরত আলী। পরে টপির পরিবারের পক্ষ থেকে কুদরত আলীকে কয়েক দফায় প্রায় চার লাখ টাকা যৌতুক দেওয়া হয়।

তারপর আবারো প্রায় দেড় মাস আগে টপির কাছে আরো দুই লাখ টাকা যৌতুক চায় সে। এ টাকা না দেয়ার কারণেই শনিবার রাতে কুদরত আলী চুলের মুঠি ধরে ঘরের পিলারের সঙ্গে মাথাকে জোড়ে ঠেসে দিয়ে ও কানের কাছে থাপ্পর দিয়ে টপিকে মেরে ফেলে। টপির মরদেহে এসব আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলেও জানান কাজল মিয়া।