প্রধানমন্ত্রীর কাছে সব নেতাকর্মীর রিপোর্ট আছে - Vikaspedia

প্রধানমন্ত্রীর কাছে সব নেতাকর্মীর রিপোর্ট আছে

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে দলের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীদের রিপোর্টার রয়েছে। তিনি সব কিছুর খোঁজ খবর রাখেন এবং সব কিছুই জানেন।

তিনি দেশের মানুষের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করছেন। তিনি চান দেশের সব মানুষ সুখে শান্তিতে দিন কাটাক।
রোববার (১৩ মার্চ) সুনামগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে দিনব্যাপী সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী আরও বলেন, শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হলে তৃণমূলের সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। সব দ্বন্দ্ব ভুলে সবাইকে আগামী নির্বাচনের জন্য কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক বাস্তবায়নকৃত সব উন্নয়ন প্রকল্প তুলে ধরতে হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমানের সভাপতিত্বে প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের যা কিছু অর্জন তার সব কিছুই আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই এসেছে। আর আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের কারণেই হয়েছে। তৃণমূলই হচ্ছে আওয়ামী লীগের মূল শক্তি।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আওয়ামী লীগের সব নেতাকর্মীদের রিপোর্ট আছে। সেই রিপোর্ট অনুযায়ী আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, একটি চক্র বাংলাদেশের দ্রব্যমূল্য বাড়িয়ে দিয়ে দেশে কৃত্রিম সংকট তেরি করেছে। এই চক্র থেকে আমাদের সবাইকে সর্তক থাকতে হবে। মনে রাখতে হবে বাংলাদেশে ষড়যন্ত্র চলছে। ভুলে গেলে চলবে না সামনে নির্বাচন, যদি আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় না আসতে পারে তাহলে দেশে সেই অতিতের মত দুর্যোগ নেমে আসবে।

এছাড়াও প্রতিনিধি সভায় বক্তব্য দেন- আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আজিজুস সামাদ ডন, সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক, সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, সিলেট-সুনামগঞ্জ সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য শামিমা আক্তার খানম, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নূরুল হুদা মুকুট, সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন প্রমুখ।

প্রতিনিধি সভায় তৃণমূলের নেতাকর্মীদের বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দেন কেন্দ্রীয় নেতারা। একইসঙ্গে বিভিন্ন উপজেলার সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করেন সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন।