সানি লিওন ঢাকায় , হুশিয়ারি দিয়ে যা বলল ইসলামী ঐক্যজোট - Vikaspedia

সানি লিওন ঢাকায় , হুশিয়ারি দিয়ে যা বলল ইসলামী ঐক্যজোট

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও আলোচিত বলিউড তারকা সানি লিওন ঢাকায় আসার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ইসলামী ঐক্যজোট। সানি লিওনের অবস্থান কোন ভাবেই সহ্য করাবে না বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন তারা। শনিবার (১২ মার্চ) রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী ও মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

বিবৃতিতে বলেন, গতকাল (শুক্রবার) সরকারের একজন মন্ত্রী গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন- তথ্য গোপন করে আবেদন করায় সানি লিওনের ভিসা আবেদন প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে।

ওই বক্তব্যের ২৪ ঘণ্টা না পেরোতেই ঢাকায় চরিত্র ধ্বংসকারী বিতর্কিত এই তারকা কীভাবে ঢাকায় প্রবেশ করল- তা এ দেশের ধর্মপ্রাণ মানুষ জানতে চায়। এসময় অবিলম্বে তাকে নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর দাবি জানায় সংগঠনটি।

তারা আরও বলেন, ৯২ ভাগ মুসলিম অধ্যুষিত বাংলাদেশে বিতর্কিত সানি লিওন আসায় ধর্মপ্রাণ মানুষ গভীর উদ্বিগ্ন। আমরা তার সফরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।তার আসার খবরে ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ বিভিন্ন স্থানে সমালোচনা চলছে। অবিলম্বে তাকে বাংলাদেশ থেকে ফেরত পাঠানোর দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে, এর দায় যারা তাকে এনেছে তাদেরকেই নিতে হবে।

বিবৃতিতে ইসলামী ঐক্যজোট শীর্ষ দুই নেতা আরও বলেন, আমরা শুনেছি- বিতর্কিত তারকার আসার পেছনে ‘গান বাংলা’ টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৌশিক হোসেন তাপস জড়িত। সরকারের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে এমন গর্হিত কাজ করায় তাকেও আইনের আওতায় এনে শাস্তি দিতে হবে।

প্রসঙ্গত, শনিবার বিকাল ৫টা ১০ মিনিটে সানি লিওন ফেসবুকে তার ভেরিফাইড অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে জানান দেন, তিনি এখন বাংলাদেশে। ঢাকা বিমানবন্দরের একটি ছবি পোস্ট করে সেখানে ক্যাপশনে লিখেছেন- ‘সুন্দর এ দেশে এসে আমি অনেক খুশি।’

এর কিছু সময় পর আরও একটি ছবি পোস্ট করেছেন তিনি। ক্যাপশনে লিখেছেন- ‘ঢাকায় পরিবারের সঙ্গে আনন্দের মুহূর্ত।’ এ ক্যাপশনে ট্যাগ করেছেন সংগীতশিল্পী তাপসের ইনস্টাগ্রাম আইডি। এ ছবিতে তার সঙ্গে বাংলাদেশের সংগীতশিল্পী ও গানবাংলা টেলিভিশনের সিইও কৌশিক হোসেন তাপস ও সানির স্বামী ডেনিয়েরলকে দেখা গেছে।

এর আগে সেলিম খান প্রযোজিত ‘সোলজার’ সিনেমার চিত্রায়নে অংশ নিতে ঢাকায় আসার কথা ছিল সানি লিওনের। বাংলাদেশে কাজের অনুমতি চাওয়া হয়েছিল সংশ্লিষ্ট দফতরে। নিয়ম মেনে আবেদন করেছিল প্রযোজনা সংস্থা ‘চেয়ারম্যান ফিল্ম সিন্ডিকেট’। ৫ মার্চ থেকে ৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশে থাকার অনুমতি পেয়েছিলেন সানি লিওন। ২ মার্চ প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে বিষয়টি জানানো হয়েছিল। পরে সানি লিওনের ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করেছে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়।