৮৮ বছর পর হায়া সোফিয়ায় হতে যাচ্ছে প্রথম তারাবির নামাজ - Vikaspedia

৮৮ বছর পর হায়া সোফিয়ায় হতে যাচ্ছে প্রথম তারাবির নামাজ

তুরস্কের হায়া সোফিয়া মসজিদে ৮৮ বছর পর প্রথম তারাবি নামাজ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ২ এপ্রিল দিবাগত রাত থেকে শুরু হচ্ছে পবিত্র রমজান মাস। ওই দিন মসজিদে প্রথমবারের মতো তারাবির নামাজ আদায় হতে যাচ্ছে।খবর আনাদোলু এজেন্সির।

করোনা ভাইরাসের কারণে ২০২০ সালের ২৪ জুলাই থেকে এটি পুনরায় মসজিদ হিসেবে চালু হয়েছে। তবে মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি-নিষেধের কারণে ২০২১ সালে এখানে তারাবির নামাজ আদায় হয়নি।

বর্তমানে তুরস্কে করোনার প্রকোপ কিছুটা কমে এসেছে। তাছাড়া দেশটির অধিকাংশ মানুষকে করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। সে কারণে হায়া সোফিয়া মসজিদ তারাবির নামাজ আদায়ের জন্য খুলে দেওয়ার সরকারি সিদ্ধান্ত হয়েছে।

উল্লেখ্য, হায়া সোফিয়া মসজিদটি ৫৩২ সালে নির্মিত হয়েছিল। তুর্কি সুলতান মাহমুদ ফাতাহ ১৪৪৩ সালে ইস্তাম্বুল বিজয়ের পর এটিকে মসজিদ হিসেবে ঘোষণা করা হয়। তার আগে এটি প্রায় ৯১৬ বছর গির্জা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছিল। এ ছাড়া ৮৬ বছর যাদুঘর হিসেবে ব্যবহৃত হয়। তবে ১৪৫৩ সাল থেকে ১৯৩৪ সাল পর্যন্ত প্রায় ৫০০ বছর এটি মসজিদ হিসেবে ব্যবহৃত হয়।

১৯৮৫ সালে ইউনেস্কো হায়া সোফিয়াকে বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে ঘোষণা করে। তুরস্কের পর্যটন আকর্ষণের মধ্যে অন্যতম এই হায়া সোফিয়া মসজিদ। যেটি দেখতে প্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটক আসেন। দেশি ও বিদেশি পর্যটকদের জন্য এটি খোলা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ১০ জুলাই তুরস্কের আদালত হায়া সোফিয়াকে জাদুঘর বানানোর ডিক্রি বাতিল করে মসজিদে ফিরিয়ে আনার পক্ষে রায় দেয়। একই বছরের ২৪ জুলাই থেকে হায়া সোফিয়ায় জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

৮৮ বছর পর এবার সেখানে হতে যাচ্ছে তারাবির নামাজ। মসজিদে রূপান্তর হলেও হায়া সোফিয়াতে থাকা খ্রিস্টীয় কারুকার্য ও প্রাচীর চিত্রগুলো সংরক্ষণ করা হয়েছে। নামাজের সময় এগুলো ঢেকে রাখা হয়।